সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কি | SEO | ২০২৩

আসসালামু আলাইকুম সবাইকে স্বাগতম এবং রমাদান মোবারক সবাইকে আমাদের নতুন ওয়েবসাইটে কয়েকটি ক্যাটাগরির উপরে বেশ কিছু আর্টিকেল প্রকাশ করা হবে যদি আপনি এসইও সম্পর্কে জানতে চান তাহলে অবশ্যই এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ কেননা ওয়েবসাইটে কাজ করার পূর্বে এসইও সম্পর্কে সমস্ত বিষয় জানা অনেকটাই জরুরী।

আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করব সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশ সাধারণ থেকে শুরু করে এডভান্স লেভেল পর্যন্ত বিস্তারিত আলোচনা করার এবং প্রতিটি আর্টিকেলে আমরা পার্ট হিসেবে ওয়েবসাইটে প্রকাশ করব। আপনি যদি নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ফলো করেন তাহলে এসইও (SEO) সম্পর্কে মোটামুটি ভালো ধারণা অর্জন করতে পারবেন।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন।

ব্লগিং শেখার ক্ষেত্রে আপনাকে আগে জানতে হবে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন অথবা আপনি যদি অনলাইনে কোন কাজ করতে চান যেখান থেকে আপনার উপকার হবে বা আপনি লাভবান হতে পারেন এরকম যেকোনো কাজের ক্ষেত্রে আপনাকে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন যাকে (SEO) বলে।

এটি আমাদের শিখা জরুরী কেননা যখন আপনি অনলাইনে কোন কাজ করতে যাবেন তখন আপনার পরিচিতি অর্জন করতে হবে তাহলে কিন্তু সেখানে সঠিকভাবে কাজ করতে পারবেন। অনলাইন জগতে প্রতিটি সেক্টরে আপনাকে এসইও শিখতে হবে এবং জানতে হবে কিভাবে এই এসইও করতে হয়।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন আমি আপনাদের সাথে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করার চেষ্টা করব প্রথমে আপনার জেনে নেব সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কাকে বলা হয় এবং এটি কিভাবে করতে হয়।

(সার্চ) সর্বপ্রথম আমরা জেনে নেব সার্চ সম্পর্কে সাধারণত আমরা অনলাইনে যেকোনো ওয়েবসাইট বা পত্রিকা সম্পর্কে জানতে চাই না কেন সেখানে একটি সার্চ বার হয়েছে সেটিকে মূলত বলা হয় সার্চ এবং এটির শুরুতে (S) এস রয়েছে।

(ইঞ্জিন) ইঞ্জিন অর্থাৎ হল ডাটাবেজ অর্থাৎ আপনি যে সেক্টরে বাজে প্লাটফর্মে কাজ করেন না কেন তার একটি ডাটাবেজ রয়েছে সেখানে কিন্তু আপনাকে সঠিকভাবে মেইন কিওয়ার্ড ফোকাস করতে হবে। এখানে ইঞ্জিনের জন্য ব্যবহার করা হয়েছে (E) অর্থাৎ প্রতিটি শব্দ থেকে একটি অক্ষর নেওয়া হয়েছে।

(অপটিমাইজেশন) এবং অটোমাইজেশন অর্থ হলো মিক্সার বা সকল তথ্য থেকে সঠিক তথ্য বের করে এবং মেইন কীওয়ার্ড সঠিক স্থানে পদর্শন করে। এখন থেকে নেওয়া হয়েছে (O) যার সম্পূর্ণ নাম অপটিমাইজেশন।

আশাকরি এখন SEO এর সম্পুর্ণ রূপ জানতে পেরেছেন। এটিকে সংক্ষিপ্ত এসইও বলা হয়ে থাকে। তাহলে অবশ্যই আমাদের এটি জানা হয়ে গেছে যে প্রতিটি সেক্টরে তাদের ডাটাবেজ এবং সঠিক স্থান প্রদর্শন সহ সার্চ ইঞ্জিনে সঠিক উত্তর দেখাতে হবে।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কেনো শিখবো।

অনেকের প্রশ্ন থাকতে পারে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কেন শিখব ? এর উত্তর হল যদি আপনি সঠিকভাবে সার্চ ইঞ্জিন অটোমাইজেশন সম্পর্কে না জানেন তাহলে আপনি কোন কিছু অপটিমাইজেশন বা অপটিমাইজ করতে পারবেন না এবং অনলাইনে প্রতিটি কাজ আমাদেরকে সঠিকভাবে অপটিমাইজ করতে হয় সেটি যেকোনো কাজ হোক না কেন।

আপনি একটি ওয়েবসাইট তৈরি করলেন সেখানে নিয়মিত আর্টিকেল প্রকাশ করতেছেন কিন্তু কোন ভালো ফলাফল পাচ্ছেন না কেননা আপনি কোন প্রকার এসইও আপনার ওয়েবসাইটের প্রয়োগ করেননি।

বা আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেল খুললেন সেখানে সঠিকভাবে আপনি এসইও করলেন না তাহলে কিন্তু আপনার ভিডিওগুলি সঠিকভাবে মানুষের কাছে পৌঁছাবে না এবং সেখান থেকে আপনি ভালো কিছু অর্জন করতে পারবেন না। তবে youtube সম্পর্কে আপনাকে সংক্ষিপ্ত কিছু এসিও ধারণা দেয়।

ইউটিউবে আপনার টাইটেল থেকে শুরু করে ট্যাগ ডেসক্রিপশন ইত্যাদি সঠিকভাবে এস ইও করতে পারলে আপনার ভিডিও সঠিক ভাবেই মানুষের কাছে পৌঁছাবে এবং সেখান থেকে আপনি ভালো কিছু আশা করতে পারবেন।

বা আপনি যদি অনলাইনে অন্য কোন মার্কেটপ্লেসে কাজ করেন যেমন ফাইবার আপ ওয়ার্ক ইত্যাদি এ সমস্ত মার্কেটপ্লেস এ কাজ করার জন্য আপনি যখন কোন দিক প্রকাশ করবেন সেখানে আপনাকে সঠিকভাবে এসএই করতে হবে এবং মানুষ কোন বিষয়টি সঠিকভাবে জানতে চাচ্ছে তা সঠিক ভাবে গিগের মধ্যে প্রকাশ করতে হবে।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কত প্রকার।

Search engine optomization এর কিছু প্রকারভেদ রয়েছে যা আমাদের জানা জরুরী কেননা শুধুমাত্র একটি বিষয় জানা থাকলে আপনি অনলাইনে কোন কিছুই করতে পারবেন না বিশেষ করে যদি আপনি ব্লগিং করতে চান এক্ষেত্রে আপনাকে সঠিকভাবে সঠিক এসইও জানতে হবে।

সাধারণত সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বা এসইও দুই প্রকার বলা হয়ে থাকে তবে এর মধ্যে আরও অনেকগুলি প্রকার হয়েছে যে আমরা আমাদের ওয়েবসাইটের পরবর্তী আর্টিকেল থেকে জানার চেষ্টা করব কেননা একটি আর্টিকেল থেকে সব কিছু জানা অসম্ভব হয়ে যাবে।

এসইও দুই প্রকার এর মধ্যে একটি আমাদের ওয়েবসাইটের ভিতরে করতে হবে এবং অন্য একটি ওয়েবসাইটের সম্পূর্ণ বাহিরে প্রয়োগ করতে হবে।

দুই প্রকারের নাম হলো:

  • অন পেজ এসইও।
  • অফ পেজ এসইও।

সার্চ ইঞ্জিন সেটি যেকোনো কিছু হতে পারে অর্থাৎ আমরা অনেকে হয়তো বা জানি সার্চ ইঞ্জিন শুধুমাত্র গুগলকে বলা হয়ে থাকে তাদের ধারণা একদম ভুল কেননা যে কোন ওয়েবসাইটের একটি সার্চ বার দেখতে পারবেন এবং সেখানে যদি আপনি কোন কিছু সার্চ করেন ও সে কি ওয়েবসাইটের কোন কিছুর সাথে ম্যাচিং হয়ে যায় তাহলে কিন্তু আপনাকে একটি ফলাফল দেখাবে।

কেননা ওয়েবসাইটে সার্চ ইঞ্জিন এই কারণে যুক্ত করা হয়েছে আপনি যেন সহজে একটি বিষয় খুঁজে বের করতে পারেন এবং যেগুলো বড় বড় সার্চ ইঞ্জিন রয়েছে যেখান থেকে শুধুমাত্র তথ্য বের করার জন্য আমরা ব্যবহার করে থাকি যেমন google, এখানে আমরা যেকোন তথ্য পাওয়ার জন্য সার্চ করে থাকি এবং এখানে তাদের ওয়েব মাস্টার হয়েছে এবং মানুষ এখানে তাদের ওয়েবসাইটগুলি যুক্ত করে আর্টিকেল প্রকাশ করার পর গুগল বট google এ প্রদর্শন করে।

সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে।

এখন কথা বলা যাক সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে। মূলত যখন আপনি কোন কিছু অনলাইনে প্রকাশ করবেন এবং সেটি কোন একটি স্থানের সাবমিট করবেন যেমন আপনার একটি ওয়েবসাইট রয়েছে সেখানে আপনি একটি আর্টিকেল লেখা ওয়েবসাইটে পোস্ট করলেন সেটি কিন্তু আপনার ডাটাবেজ সংরক্ষণ করে নেবে।

এবং যখন আপনার সেই ডাটাবেজ এর মধ্যে কোন সার্চ বারবার ইঞ্জিন যুক্ত করা থাকবে তখন সেখানে যদি আপনার ওয়েবসাইটের সম্পর্কিত কোন তথ্য সার্চ করা হয় সেটি সেখানে প্রদর্শন করবে।

আপনার তো এটা জানা রয়েছে যে প্রতিটি সেক্টরে কিন্তু সার্চ ইঞ্জিন রয়েছে এবং আপনি যদি কোন একজন ডেভলপারের সাথে কথা বলেন তাহলে আরো সহজ ভাবে বুঝতে পারবেন যে সার্চ ইঞ্জিন কতটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে একটি প্লাটফর্মের জন্য।

যদি আপনার ওয়েবসাইটে একটি সার্চ বার না থাকেন এক্ষেত্রে কিন্তু একজন ইউজার সহজে আপনার ওয়েবসাইট থেকে কিছু খুঁজে পাবে না কেননা একটি একটি করে পোস্ট খোঁজা অনেকটাই মুশকিল যখন আপনার ওয়েবসাইটে একটি সার্চ বার থাকবে সেখানে কোন কিছু সার্চ করলে সাথে সাথে আমাদের সামনে সেটি চলে আসবে।

সেই রকম ভাবে আপনার ওয়েবসাইটে যদি গুগলে সাবমিট করে থাকেন এবং আপনি যদি প্রতিনিয়ত আপনার ওয়েবসাইটে আর্টিকেল প্রকাশ করেন তাহলে কিন্তু আপনার ওয়েবসাইটে প্রচুর ভিজিটর বা পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিজিটর আসবেনা কেননা আপনার আর্টিকেলগুলি সঠিকভাবে অপটিমাইজেশন করা হয় নি যাকে মূলত বলা হয়ে থাকে সার্চ ইঞ্জিন অক্টোমাইজেশন।

আপনাকে এমন ভাবে তথ্য প্রকাশ করতে হবে যেন মানুষ সেখান থেকে সঠিক বিষয়ে জানতে পারে এবং google কখনোই আপনার কনটেন্ট এর প্রাধান্য দেবে যখন আপনি সঠিক কোন তথ্য শেয়ার করবেন।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কিভাবে শিখব।

সার্চ ইঞ্জিনেশন কিভাবে শিখব এর উত্তর হল আপনাকে প্রতিটি ধাপ আস্তে আস্তে শিখতে হবে কেননা আপনি চাইলে কিন্তু এসইও দু-একদিনের মধ্যে শিখতে পারবেন না। এখানে অনেকগুলি ভাগ রয়েছে যা আপনাকে আলাদাভাবে শিখতে হবে।

এবং অনলাইনে কোন কিছু করার ক্ষেত্রে আপনাকে সকল ধরনের এসিও মাথায় রাখতে হবে শুধুমাত্র অন পেজ এসইও যে আপনার ব্যবসা বা আপনার ব্লগ মানুষের কাছে দ্রুত পৌঁছাবে তা কিন্তু নয়।

আপনাকে এমন ভাবে তথ্যগুলি জানতে হবে যেন আপনি আপনার কনটেন্ট এর মধ্যে সঠিকভাবে তা প্রয়োগ করতে পারেন এবং কোন কনটেন্ট এ যদি আপনি সঠিকভাবে এসইও প্রয়োগ করতে পারেন আশা করা যায় আপনি সেখানে ভালো রাঙ্কিং পাবেন।

কেননা প্রতিটি স্থানে আমাদের রাঙ্কিং অর্জন করতে হবে তাহলে কিন্তু সেখান থেকে আমরা ভালো কিছু করতে পারবো এবং ভালো কিছু আশা করতে পারবো। যদি আপনি সঠিকভাবে এসইও না করেন তাহলে কিন্তু সেখানে সেটি সেভাবেই পড়ে রবে।

আমাদের ওয়েব সাইটে আমি প্রতিটি বিষয় নিয়ে নিয়মিত আর্টিকেল দেওয়ার চেষ্টা করব এবং প্রতিটি পর্বে আমরা একটি করে বিষয় সম্পূর্ণ জানার চেষ্টা করব উদাহরণসহ। আপনি এসইও সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটটি নিয়মিত ফলো করতে পারেন এবং আপডেট এসইও সম্পর্কে আপনাদের সাথে আলোচনা করব পরবর্তী আর্টিকেলে।

আমাদের আজকের আর্টিকেল এই পর্যন্তই পরবর্তী আর্টিকেলটি পাওয়ার জন্য অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকবেন এবং নিয়মিত ভিজিট করবেন আমাদের ওয়েবসাইট থেকে নতুন কিছু শিখার জন্য। যদিও একটি নতুন আর্টিকেল আমরা চেষ্টা করব আমাদের ওয়েবসাইট হতে আপনার জন্য নতুন কিছু শিখতে পারেন এবং আপনি নিজে সেটি শিখে আরো একজনকে শেখার উৎসাহিত করতে পারেন।

প্রতিটি সেক্টরে আমাদেরকে জায়গা করে নিতে হবে এর জন্য অবশ্যই এসইও এর বিকল্প নেই। সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকবেন ধন্যবাদ সবাইকে।

Visited 3 times, 1 visit(s) today

Leave a Comment

x