সৌদি নতুন ই-ভিসা চেক করার নিয়ম

সুপ্রিয় দর্শক আসসালামুয়ালাইকুম কেমন আছেন সবাই আশা করি সকলে ভালো রয়েছেন।

আজকে আপনাদের সঙ্গে আরও একটি নতুন আপডেট নিয়ে হাজির হলাম। আজ আমরা জানার চেষ্টা করব সৌদি নতুন ই-ভিসা চেক করার নিয়ম সম্পর্কে।

বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে আপনি ই-ভিসা তৈরি করতে পারবেন। এবং এটা সম্পুর্ণ ফ্রিতে করতে পারবেন। কোনো প্রকার টাকা পয়সা প্রদান করতে হবে না।

যদিও পূর্বে এটি করার জন্য সৌদি সকারকে ২০০$ ফি প্রদান করতে হতো। কিন্তু বর্তমানে সৌদি নতুন ভিসা করতে কোনো ফি নেই।

সৌদি নতুন ই-ভিসা চেক করার নিয়ম

এখন আপনি ঘরে বসেই কিন্তু সৌদি নতুন ভিসা চেক করতে পারবেন। শুধুমাত্র একটি স্মার্টফোনের মাধ্যমে এটি চেক করা যাবে।

তুন ই ভিসা সৌদি চেক করার জন্য আমাদের বেশ কিছু নিয়ম জেনে নিতে হবে। তাহলে পরবর্তী সময়ে আমরা খুব সহজে সৌদি আরবের ভিসা চেক করতে পারবো।

অনলাইন সৌদি ভিসা চেক, পূর্বের নিয়ম ব্যবহার করে যারা ভিসা চেক করেছিলেন। তারা এখন থেকে নতুন নিয়ম অবলম্বন করে ভিসা চেক করতে পারবেন।

এবং এটি চেক করার জন্য অবশ্যই আপনাকে অফিসের ওয়েবসাইট ব্যবহার করতে হবে মোফার।

আরোও পড়ুন: পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ভিসা চেক।

অবশ্যই আপনি অবগত রয়েছেন যে পূর্ব এমবাসি (mbasi) থেকে ভিসা তৈরি করতে গেলে অনেক সময় নানা ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে।

তার মধ্যে অন্যতম হলো আপনার সঠিক টাইমে এখান থেকে ভিসা নিতে পারিনি। সময় পরিবর্তন হওয়ার কারণে অনেক ক্ষেত্রে দেখা দিয়েছে সঠিক টাইমে সঠিক গন্তব্যে পৌঁছাতে পারিনি।

Saudi New E-visa হবার কারণে এখন খুব সহজে যে কোন তথ্য ইমিগ্রেশন দ্রুত সম্পন্ন করা যাবে। এবং যেকোনো ইমিগ্রেশন সেন্টারে আপনার তথ্য গুলি দ্রুত যাচাই করা যাবে।

এখান থেকে আপনি আরো বেশ কিছু সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন যা হয়তোবা পূর্বে কষ্টকর ছিল।

সৌদি আরবের নতুন ই ভিসা চেক করার নিয়ম

আপনি এখন ঘরে বসে কিন্তু এটি করতে পারবেন অনলাইন এর মাধ্যমে। অথবা যদি আপনি কারো আন্ডারে বা কোন কোম্পানির অধীনে ভিসা তৈরি করেন। তাহলে সেটি আপনার ভিসার মাঝে দেখতে পারবেন।

তো কিভাবে সৌদি নতুন ই ভিসা চেক করবেন সেই নিয়ম সম্পর্কে আমরা জানার চেষ্টা করব। আমাদের এটি দেখার জন্য কয়েকটি তথ্য প্রয়োজন হবে।

অবশ্যই এই তথ্যগুলি আপনাকে পূর্বে সংরক্ষণ করতে হবে এবং শুধুমাত্র ভিসার চেক করার নিয়ম সম্পর্কে জানার জন্য অবশ্যই আপনার একটি ভিসা তৈরি থাকতে হবে।

আপনার বিষয়টি সঠিকভাবে তৈরি হয়েছে কিনা এটাই জানার জন্য সৌদি সরকার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে তথ্য যাচাই করতে হবে। একটি মোবাইল ফোন অথবা স্মার্ট ডিভাইস এর মাধ্যমে ভিসা চেক করতে পারবেন।

তাহলে চলুন দেখে নেয়া যাক কিভাবে আপনি নতুন সৌদি আরবের ই ভিসা চেক করবেন। এবং কি কি তথ্য আমাদের প্রয়োজন হবে ভিসা চেক করতে।

সৌদি ই-ভিসা চেক করার নিয়ম

সৌদি নতুন ই-ভিসা চেক করতে প্রবেশ করুন, https://visa.mofa.gov.sa/ এখানে হোমপেজে আপনার “Visa application number” দিয়ে এবং পাসপোর্ট নাম্বার প্রবেশ করিয়ে ক্যাপচারটি পূরণ করে “Search” ক্লিক করলে আপনার সৌদি ভিসার তথ্য দেখতে পারবেন।

যদি আপনি আরো সহজ ভাবে বুঝতে চান। তাহলে ছবি দেখুন এবং ভালো করে লক্ষ করুন আশাকরি সহজে বুঝতে পারবেন।

সর্বপ্রথম উপরে থাকা ওয়েবসাইটের প্রবেশ করুন এবং এরপর দেখতে পারবেন আপনার সামনে সকল তথ্য বা লিখা আরবীতে আসবে। এখান থেকে সহজে বুঝার জন্য English অপশনে ক্লিক করবেন।

তাহলে সকল তথ্য ইংলিশ হয়ে যাবে এবং আমাদের ই-ভিসা চেক করতে আরো সহজ হয়ে যাবে। এখন দেখতে পারবেন একটি ফরম চলে আসবে।

এখানে প্রথম যে ঘরটি রয়েছে সেখানে আমাদেরকে নির্বাচন করতে হবে আসলে আমরা কি দিয়ে ভিসা টি চেক করব। এখানে মোট ৩টি অপশন আসবে

সৌদি নতুন ই-ভিসা চেক করার নিয়ম

আপনি যেটি দিয়ে যাচাই করবেন সেটি সিলেক্ট করে নিচের ঘরে তার নাম্বার দিতে হবে। এবং এরপর আপনার যে পাসপোর্ট রয়েছে তার নাম্বার দিতে হবে।

সর্ব শেষ দেখতে পারবেন একটি ক্যাপচার রয়েছে। সেটি সঠিক ভাবে পূরণ করবেন। এবং সার্চ অপশনে ক্লিক করবেন। কিছুক্ষণ সময় অপেক্ষা করলে দেখতে পারবেন এই রকম চলে এসেছে।

Saudi New E-visa cheak Online

এইভাবে কিন্তু আপনি ঘরে বসে আপনার ভিসাটি চেক করতে পারবেন যে সঠিকভাবে তৈরি হয়েছে কিনা।

সৌদি ই-ভিসা সংক্রান্ত তথ্য যাচাই

এখানে আপনাকে অবশ্যই ভিসা তৈরি করতে হবে তার পরবর্তী সময় কিন্তু উপরে নিয়ম অবলম্বন করে ভিসা চেক করতে পারবেন মোবাইল ফোন দিয়ে।

এটি নতুন নিয়ম সৌদি ভিসা চেক করার জন্য, পূর্বে অন্য নিয়ম থাকলেও এখন থেকে এটি ব্যাবহার করে খুব সহজে আপনার সকল তথ্য দেখতে পারবেন।

এবং এই তথ্য যাচাই করার পূর্বে আপনাকে এপ্লিকেশন বা আইডি নাম্বার সংরক্ষণ করতে হবে। এই বিষয় নিয়ে ওয়েবসাইটে পরবর্তী আর্টিকেল প্রকাশ করা হবে।

কেননা আপনাকে পূর্বে আরও একটি কাজ জানতে হবে এবং আপনার বিষয় যখন সম্পূর্ণ তৈরি হবে তারপরে কিন্তু আপনি অ্যাপ্লিকেশন নাম্বার বা অন্যান্য তথ্য পাবেন।

সমস্ত ধাপ সম্পন্ন হওয়ার পর আপনি এভাবে আপনার ভিসা চেক করতে পারবেন অনলাইন থেকে। এবং এখানে আপনি অনেকগুলো তথ্য পেয়ে যাবেন একসাথে। আরবি এবং ইংরেজিতে দুটো ভাষায় এখানে রয়েছে।

আমি সংক্ষিপ্ত বলার চেষ্টা করবো, আপনি এখানে দেখতে পারবেন, আপনার ভিসার তৈরির তারিখ এবং এটির মেয়াদ কতদিন পর শেষ হবে। আপনার নাম ঠিকানা, আপনি কি কাজে এসেছেন সৌদি আরবে, পাসপোর্ট নাম্বার সহ আরো অনেক তথ্য।

এখান থেকে এটি আপনি প্রিন্ট আকারে সংরক্ষণ করতে পারবেন। এবং ব্যবহার করতে পারবেন কোন সমস্যা হবে না। এই নিয়মটি চালু হওয়ার কারণে অনেকটা সুবিধা হয়েছে। এক্ষেত্রে দালাল চক্র খুব কম মানুষের সাথে দালালি করতে পারবে।

শেষ কথা

আশা করি বুঝতে পেরেছেন। যদি কোন কিছু সমস্যা হয়ে থাকে অবশ্যই কমেন্টে আপনার মতামত জানাবেন এবং পরবর্তী আর্টিকেলে আমরা জানার চেষ্টা করব কিভাবে যদি সৌদি আরবের ভিসার অ্যাপ্লিকেশন নাম্বার সহ আরো বিভিন্ন ধরনের তথ্য সম্পর্কে।

সকলে ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন এবং আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন ধন্যবাদ সবাইকে।

Leave a Comment

x